‘মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার’ এ আছে রুপক ইতিহাস জানার সুযোগ

118

বই: মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার
লেখক: মিলন রহমান
প্রকাশক: ইরাবতী
প্রচ্ছদ: আলমগির জুয়েল
মূল্য: ১৫০ টাকা মাত্র।

রুপকথার গল্প কে না ভালবাসে? তবে খুব শৈশবে রূপকথাগুলো কোমলমতিদের মনে দাগ কাটে একটু অন্যভাবে। কল্পনাপ্রবণ শিশুরা রূপকথারাজ্যে উড়ে উড়ে পরিপাড়া, যাদুর শহর ঘুরতে পছন্দ করে। খেলতে পছন্দ করে ফুলপরি, মৎসকন্যার সাথে। চড়তে পছন্দ করে ডানাওয়ালা ঘোড়ার পিঠে। এই পরিপাড়া ও যাদুর শহরে উড়িয়ে ঘুরিয়ে নিতে চেষ্টা করেন ‘মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার’ এর লেখক মিলন রহমানের মতো শিশুসাহিত্যিকরা।

শিশু সাহিত্যিক মিলন রহমান লেখা শিশুদের জন্য রূপকথার গ্রন্থ ‘মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার’ পড়ে মনে হয়েছে এটা শুধু রূপকথাই না, যেনো পরাবাস্তবতাকে বাস্তবতায় টেনে আনা সত্য উপলব্ধি। বইটির মূল্য ১৫০ টাকা লেখা থাকলেও ২৫% ছাড়ে ১১০ টাকায় কিনেছিলাম। ইরাবতী প্রকাশনীর দৃষ্টিনন্দন গ্লোসি পেপারে শিশু কিশোরের মননশীল চিত্রকলার এক অপুর্ব বই ‘মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার’। ছোট ছোট বাক্যে সহজ কথায় শিশুদের উপযোগী উৎকৃষ্ট রূপকথা তো এমনই হওয়া প্রয়োজন। গল্পটি শিশুদের মানসিক বিকাশে স্থান পাবে বলে মনে করি।

মেঘের দেশের এক রাজপুত্রের সাথে দেখা হয় পাতালপুরীর এক মৎস্যকন্যার। দু’জনের মধ্যে হয় জানাশোনা। ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে একটা টান তৈরি হতে থাকে। সেই টানকে গল্পের শেষ পর্যায়ে অন্তিম সমাপ্তিতে পরিশীলিত গতিময়তায় শেষ করা হয়। যেখানে রয়েছে রুপক ইতিহাস জানার সুযোগ।

অ্যালবার্ট আইনস্টাইন বলেছিলেন, “কল্পনা জ্ঞানের চেয়ে আরো গুরুত্বপূর্ণ”। কল্পনা হচ্ছে সৃজনশীল প্রতিচ্ছবি তৈরি করার ক্ষমতা, ধারণা এবং ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়র মাধ্যমে অনুভব করে দেখা ও শোনা। সমস্যার সমাধানে জ্ঞানের প্রকৃত প্রয়োগে কল্পনা সাহায্য করে। মূলত কোন বিষয় সম্বন্ধে ব্যক্তি অনুভূতির বহিঃপ্রকাশের প্রক্রিয়ায় চেতনাকে জাগানো। কল্পিত কল্পনায় গল্পকার মিলন রহমান তুলে ধরেছেন রূপকথার গল্প ‘মৎস্যকন্যা ও মেঘ রাজকুমার’। গল্পটি পড়লে শিশু কিশোরদের কল্পনাশক্তি বৃদ্ধি করে অন্য উচ্চতায় তাদের নিয়ে যাবে বলে বিশ্বাস করি।

– ওয়াসিম হোসেন